• রুমি ভট্টাচার্য

অণুগল্প - বাসা



দুটো চড়াই পাখি অনেকক্ষণ ধরে ঘাস পাতা, কাগজের টুকরো, খরকুটো, শুকনো ডাল নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়েছিল। একটা পাখি ক্রমাগত নিয়ে আসছে আর অন্যটি সংগ্রহ করছে। সংগ্রহ রত পাখিটি নিজের ভাষায় কি সব বলছে আর অন্যটি সঙ্গে সঙ্গে শশব্যস্ত হয়ে উড়ে যাচ্ছে।


অনেকক্ষণ পরে সামনের ফ্লাটের কার্নিশে দুটো চরাই পাখির ঘর বাঁধার অক্লান্ত প্রচেষ্টা উপভোগ করছে শ্রাবণী। অজান্তেই ঠোঁটের কোণে একটা হাসি ফুটে ওঠে তার।


"দিদি তোমার গাড়ি এসে গেছে তাড়াতাড়ি চলো" - সবিতার ডাকে সম্বিত ফেরে তার পাখিগুলোকে ফেলে দরজার দিকে পা বাড়ায় সে আজ যে তার বিবাহ বিচ্ছেদ মামলার শুনানি।




নীড়বাসনা আষাঢ় ১৪২৮