• কুন্তল ঘোষ

কবিতা - চাঁদের পাহাড় 




শীতের অলস সকালে 

একা বসে বারান্দার কেদারায় 

ঘন কুয়াশায় সব আজ অস্পষ্ট 

চায়ের পেয়ালা হাতে 

মন ছোটে চাঁদের পাহাড়ে, শেষে 

হারিয়ে যায় এসে কৈশোরের আঙিনায় ।। 


শিশিরে মাথা কোটে 

শিউলি-ঘাসেদের খোঁজে 

কালো-খেঁদারা হারিয়ে যায় 

সভ্যতার আলোয়, সাথে 

জিরান কাঠের খেঁজুর রস টাও, 

দৃষ্টি থামে ঝুলে থাকা ঝাপসা হাঁড়িটায় ।। 


মন আবার হারায় 

কাটা ধানের খালি মাঠে 

ঘুড়িটা লাগাম ছেড়ে উড়তে চায় 

খোলা উন্মুক্ত আকাশে, 

দিন হারায় লিয়াকতদের 

সাথে রাস্তায় অবিরাম গুলি খেলায় ।।


কানা-নদী এঁকেবেঁকে 

তীরে ভিড় সর্ষে আর কৃষ্ণচূড়ার

মন খেলে রাসলীলা রঙের বর্ষায়,  

নদী পারে মাদলের তালে

সাঁওতালদের গান ও নৃত্যে 

দিন যেন মেতে ওঠে মহূয়ার নেশায় ।। 


সময় এগিয়ে চলে 

কখন যেন কুয়াশা কাটে 

অস্পষ্ট বাস্তব নীরবে ফুটে ওঠে, 

সভ্যতার কর্কশ ধ্বনি 

নীরবতা ভাঙে কন্ক্রিটের পাহাড়ে

কৈশোরকে ঝাপসা করে, দেয় বিদায় ।।





নীড়বাসনা আষাঢ় ১৪২৮