• দীপাঞ্জন মাইতি

ফুটপাতে

ফুটপাতে -১

আকাশের গায়ে পিঠ পেতে শুয়ে থাকে ওরা,

শেষ ভোরে রাত - ফেলে যায় তারাদের চাদর,

রাজপথে রাজকীয় আধিপত্যে...

মুঠো মুঠো দয়া ফিরিয়ে দেয় ওরা চিনে নিয়ে মোড়ক মাত্রে আদর।

ফুটপাতে-২

দীনের যাপন, দখল, দাবি -

বার্গেনে সব সস্তা;

সংকীর্ণ মন, সংকীর্ণ জীবন,

সংকীর্ণ বাড়ি ফেরবার রাস্তা।

ফুটপাতে - ৩

দিনলিপি লেখা হয় রোজ -

বেখেয়ালে রোজ মুছে যায়,

পা এ পা এ পাতা শূন্যতা -

কাকে যেন কাছে পেতে চায়..

ফুটপাতে - ৪

বিভ্রান্ত সমাজের স্বীকৃতি বড় বিরূপ বাস্তব;

পুরনো বাড়ির পিছনে অধিকার ছাতি চেপে ধরে পিচ রাস্তায়,

কানা গলি ধরে হামাগুড়ি দেয় আপাত সাজানো সংসার।

মরা স্ট্রীটলাইটের তলায় ভালোবাসা বৈধতা খুঁজে বেড়ায়...

ফুটপাতে-৫

ফুটপাতে কোনো রংরুট নেই..

রংরুটে ফুটপাত আছে।

কিছু শৈশব তেতলার ছাদে পিছুটান,

কিছু হাফপ্যান্টে বাসস্ট্যান্ডের কাছে।

বৈষম্যের প্রথম অঙ্ক

স্বপ্নের খাতে কাটাকুটি-

কারো স্কুল শেষে কাজ শুরু

কারো কাজ শেষে স্কুল ছুটি।

ফুটপাতে - ৬

গতির কাছে দৈনিক হেরে যায় মতি,

নস্টালজিয়া চাপা দেয় প্রশস্ত রাজপথ,

চুনকামে চকচকে প্রথম সারির বাড়িগুলো,

গলিময় দগদগে পরাজিত সহবত।

আচ্ছে দিনের বুকে ব্যস্ত শহরের গল্প -

পড়ে থাকে গোলাপি লিফলেটে,

পা এর তলার জমি কখন যেন চোরাবালি

গুরুত্ব হারায় ফোর জি নেটে..

ফুটপাতে-৭

রাজপথ থেকে আকাশের ইঞ্চি দুয়েক কাছে..

পা এ পা এ সেই একই গল্প হরেক ভাষায় লেখা হয়,

কে যেন বলেছিল বৃষ্টির গায়ে মা মা গন্ধ লেগে থাকে !

নিউমোনিয়া কারো কারো বিলাসিতা নয়।

গতিশীল গোলার্ধ নিয়মিত গন্তব্য পাল্টায়,

জেব্রা ক্রসিং এর পাশে তৃতীয় বিশ্ব ঠাই অপেক্ষারত,

ফুটপাতে শৈশব ডিভাইডারে বার্ধক্য ইউজলেস..

বাকি পুড়তে থাকা জ্বালানির ক্ষত-

ওদেরই একজন মনে হয় বলেছিল একদিন বৃষ্টির গন্ধ খুব চেনা..

অনেকটা - মায়ের মত।

ফুটপাতে - ৮

দরজার ঠিক সামনে এসে থমকে যেতে হয়..

পথিকের পাড়ায় প্রেম গাছে গাছে ফুল দেয়,

মাঝেমাঝে কৃষ্ণচূড়া রাধাচূড়া ঝরে পড়ে -

স্বপ্নেরা মিথ্যের দলিল লেখে

বোকা মন ফুটপাতে বিশ্রাম নেয়।

ফুটপাতে-৯

দ্বীপ মানে কি কেবল জলাশয় বেষ্টিত ভূমি!

না কি বিচ্ছিন্ন একটি স্বতন্ত্রতা?

ট্রাফিক সিগনালে দাঁড়িয়ে থাকা ভিখিরি বা

বয়:সন্ধির প্রেমিক - সবার এলাকা ভাগ করা আছে..

কারো ঠোঁট কারো উরু; নিলামি হয় -

কেউ জেতে কেউ হারে..

একটা গলি থেকে অন্য গলি -

মাঝখানে ভাঙাচোরা মিটার খানেক চওড়া এক একটা ফুটপাত;

দিনের বেলায় জবরদখল করে বোরখা বিক্রি হয়,

খদ্দের আসে.. সন্ধ্যে নামার পর নতুন রকম ভিড় -

'গলির ভেতর সব ব্যবস্থা আছে' - হাঁক পাড়ে গালে ব্রণ ওঠা ছেলেটা,

নিলামে তখন আব্রু - বোলি পাঁচশো তে শুরু,

সবার এলাকা ভাগ করা আছে.. কারো ঠোঁট কারো উরু;

দু'গলি বাদে এদিক ওদিক দুপিঠের বাকি ফুটপাত'ভদ্রলোকের' বাস..

মাঝেমাঝে ও পাড়ার কিছু মুখ চেনা পড়ে খদ্দেরের ভিড়ে।

যোগাযোগ কেবল প্রয়োজনের.. নিরুত্তর রয়ে যায় প্রশ্নটা -

দ্বীপ মানে কি কেবল জলাশয় বেষ্টিত ভূমি! না কি বিচ্ছিন্ন একটি স্বতন্ত্রতা?

ফুটপাতে – ১০

রঙ বেরঙের খোপ কাটা ঘর,

আল দেওয়ালে মানুষের বাস,

প্রাণহীন মাটি ফুল দেয় না..

প্যারিসের গায়ে আগাছার চাষ;

চিড়ে চ্যাপ্টা জনতার ভিড়ে -

শহরের ক্রমে বুজে আসে শ্বাস,

পথ যেখানে ফুটপাতে মেশে –

স্পষ্ট উলঙ্গ শ্রেণী বিন্যাস;

টায়ারের দাগ লাইন টেনে দেয়,

আর্তনাদের বুকে উল্লাস..

এক পাশে লাল রক্তের রং

এক পাশে লাল ওয়াইনের গ্লাস।।

ফুটপাতে -১১

নতুন ভোরের প্রতিবেদন -

লুটিয়ে পড়েছে ফুটপাতে,

আবর্জনার ভিড়ে এক সূর্য অস্ত গেছে -

গত নিয়ন আলোর রাতে।

বিশ্বাসভাজন খোঁচর ঠিকানা জানিয়েছিল,

খোঁজ শুরু হয়েছিল দিন দুই আগে,

রাজপথ ভিজেছিলে লালে -

বেলফুলের গন্ধ ছড়িয়েছিল রক্তের দাগে।

আঁশটে শহরের মাঝ বরাবর হেঁটে চলেছি

দুই পাশে থরে থরে লাশ,

মাঠ জুড়ে চিতা আর কবরের ভিড় –

ফুটপাতে মিশেছে আকাশ।

নতুন ভোরের প্রতিবেদন -

লুটিয়ে পড়েছে ফুটপাতে,

আবর্জনার ভিড়ে এক সূর্য অস্ত গেছে -

গত নিয়ন আলোর রাতে।

ফুটপাতে – ১২

আমার যে বার খুব জ্বর হয়েছিল মা সারারাত বসেছিল বিছানার পাশে,

কপালে ভিজে কাপড় আর প্রতি ঘণ্টায় বগলের তলায় থার্মোমিটার..

জ্বর কমে নি। একদিন কমে নি, দু’দিন কমে নি, তিন দিন কমে নি;

সবাই ভেবেছিল আমি হয়তে মরে যাবো – মা ঠাই বসেছিল,

আবছা দেখেছিলাম দাড়ি বেড়ে গেছিল বাবার।

আমার শহরের গায়ে খুব জ্বর.. উষ্ণতাআর তাপমাত্রা ভিন্ন দু’টি অনুভূতি,

পিচ রাস্তায় শুয়ে আছে বিস্তীর্ণ জনমানসে জীর্ণ অবয়ব,

আমার দাড়ি কাটা হয় নি অনেকদিন..

আমার যে বার খুব জ্বর হয়েছিল মা সারারাত বসেছিল বিছানার পাশে,

আমি সেরে উঠে বুঝেছিলাম জ্বর লেগে গেছিল মায়ের হাতে;

আমার শহরের গায়ে খুব জ্বর.. ধূসর রাজপথে শরীর ফেলে দিয়েছে তিলোত্তমা,

এক বাটি জল আর ভিজে কাপড়ের টুকরো নিয়ে.. আমি বসে আছি ফুটপাতে।

নীড়বাসনা আষাঢ় ১৪২৮