• দীপ

গোঁসাই বাড়ির ভূত


অনেকদিনের পুরনো এক,

কান্ড খানা খুব জবর,

বলতে পারি, দেখো বাপু -

হয় না যেনো সে খবর।

ধরতে পারো.. সে ক'টা হবে!

মনে তো হয় সাতটা,

রোজের মতই নিঝুম তখন,

দালান বাড়ির রাতটা।

একলা দাওয়ায় সেজে তামাক,

গড়গড়িতে দিচ্ছি টান,

নাকী সুরে শুনি হঠাৎ,

কে যেন এক ধরল গান।

শুনে আমি ভাবছি তখন,

বাজছে বটে আমার কান,

বুঝছি না ঠিক ব‍্যাপারখানা

হঠাৎ হাজির সাত সটান।

সামনে দেখি সাতজোড়া হাত,

সাতটিখানি উচ্চ টিকি,

দাঁতগুলো খুব ফরসা মত,

চোখগুলো ঠিক এক সিকি।

হোক গে পিলে ছলাত ছলাত,

ভয় পেলে তো চলবে না!

সবাই জানে গোঁসাই উকিল -

কিছ্ছুটিতে গলবে না।

দিলাম ছুঁড়ে হেঁকড়ে গলা,

"কে রে বটে এই সময়?"

জবাব এল "ভূত গো কত্তা,

দয়া করে পায়েন না ভয়।"

গোঁসাই:

কেমন তর বেআকেল্লে,

বেয়াড়া মত মশকরা,

যখন তখন আসবি না কি,

কে দিলে সে আস্কারা?

ভূত:

আজ্ঞে কত্তা খুব বিপদ,

ছুট্টে এলুম আমরা তাই,

আপনি জানি ঠিক পারবেন

ঠিক করবেন এক উপায়।

গোঁসাই:

কিসের নেশা করিস তোরা?

ভূত না কি তোরা ডাকাত দল!

আমি তোদের করব উপায়,

কেমন করে তোরাই বল।

ভূত:

কত্তা মোরা এ সাত ভাই,

ব‍্যবসা অনেক পুরনো,

নাম দিয়েছি ঘোস্ট ট্র‍্যাভেলস,

কাজ ভূতেদের ঘুরনো।

গোঁসাই:

কি ! বড্ড এবার বাড়াবাড়ি,

অসীম দেখি ফাজলামি,

ভূত তো বটে কায়াহীন,

তাদের আবার ট্র‍্যাভেলস কি?

ভূত:

ফাজলামি না কত্তা এখন-

মানুষগুলান অলস বড়,

যেতেই পারে যায় না তবু,

এমন অলস মরার পরও।

গোঁসাই:

বলিস কি রে! এমন ব‍্যাপার?

তা আমি মানুষ মাত্র বটে,

তোদের কি করে লাগবো কাজে?

ঢুকছে না তো ঘটে।

ভূত:

মন্দ ভালো হোক সে যা হোক,

ভূত টুরে সব বাস পুরে,

শ্মশ্মান কবর রাইটার্স সেরে,

মেট্রো, গঙ্গা ফুরফুরে।

গোঁসাই:

ব‍্যবসা যখন চলছে ভালোই,

আমার বাপু কিসের কাজ!

তোদের ঐ বাস ধরে...

তোরাও দেখি পালা আজ।

ভূত:

কত্তা গো এই ছেলে ছোকরা,

বিপদ খানা বলব কি আর..

শ্মশান কবর ধর্মতলায়,

সবার হাতে ডি এসেলার।

সারাক্ষণ কিলিক ফিলিক,

চোখ ধাঁধিয়ে চক্রবর্তী,

চমকে পিলে আঙুল গিলে,

ভূতেরা পালায় বাস ভর্তি।

বলুন তবে কত্তামশাই,

আমরা এবার কোথায় যাব?

এমন বিপদ বেয়াড়া মানুষ,

বিহিত মোরা কই পাব!

তাই তো আসা অনেক আশায়,

দেখুন না গো কত্তামশাই,

ঘাড় মটকাতেও গেছি ভুলে,

কেউ যে মোটে মানছে নাই।

কবর শ্মশানে ঢুকতে নারি,

অবস্থা গো খুব করুণ,

আইন দিয়ে ডি এসেল আর,

উকিলবাবু বাঁধ ধরুন।

মানুষের ফাঁদে নাজেহাল ভূত,

ভরসা গোঁসাই উকিল,

আইন কানুন জমছে লড়াই,

মারছে ভূতে ঢিল,

লড়াই শেষে সে দিন এল,

ক‍্যামেরা মুক্ত শ্মশান ঘাট,

পারিশ্রমিক! উকিল ভূতের ফ্রী ট্রিপ-

ময়দান টু তেপান্তরের মাঠ।

নীড়বাসনা আষাঢ় ১৪২৮