• রূপম গুহ খাসনবীস

কবিতা গুচ্ছ - আগুন, মিত্রা আর আমি

আগুন, মিত্রা আর আমি - ১

সুখে আছো মিত্রা ? আমি তো বেশ আছি, তোমারই কাছাকাছি, প্রাণ খুলে কেঁদে হেসে, তোমাকেই ভালোবেসে, শেষ দিন গুনি এ প্রভাতে !

গান শোনো আজও ? আমি তো এখনও গাই, হৃদয়ে তোমাকে পাই, সুর বাঁধি কথা দিয়ে, স্বপ্নে তোমায় নিয়ে, গোলাপ পাপড়ি নিয়ে হাতে !

মনে পরে সেই দিন ? রাস্তার ঠিক মোড়ে, বই খাতা হাতে ধরে, টিউশন ফাঁকি দেয়া, শুধু মন দেয়া নেয়া, বসন্ত থেমে ছিলো সাথে !

ভুলেছো সেই রাত ? ঠোঁটে ঠোঁটে মাখা মাখি, দেখে ছিলো রাতপাখি, এলিয়ে তোমার বুকে, জীবনের সেরা সুখে, হারিয়ে ছিলাম সেই রাতে !

আগুন, মিত্রা আর আমি - ২

আমি আসলে ভণিতায় মিথ্যে প্রশ্ন করি, সত্যি করে জানতে চাই না তুমি কেমন আছ ! আমি শুধু শুনতে চাই, কতটা কষ্টে আছ ? নামের নয়, যন্ত্রণার অগ্নিতে তুমি পুড়ছো কিনা ? কতটা শূন্যতায় তুমি বিলীন হয়ে আছো ? কতোটা বেদনার কবর খুঁড়ে শুয়ে আছ তুমি ! আজও কতোটা কষ্টে আছো আমার নেশার বিষে, আমি ছাড়া কারোর চোখে শান্তি পাওনি অবশেষে! চাই তুমি মন খামচে আমাকে রক্তাক্ত কর, প্রশ্ন করো “কেমন আছ তুমি ?” আমি আর্তনাদ করে বলবো “শুধুই বেঁচে আছি, ভালো নেই, তোমায় ছাড়া" !

আগুন, মিত্রা আর আমি - ৩

তোমায় তো রোজই আমি দেখি ; খবরের মাঝে খবর হয়ে হয়ে, বোকাবাক্সে বন্দী আমার পাখি, প্রেমের মেঘে নৌকা বেয়েবেয়ে !

ঠোঁটটা যেন আজও ভেজা লাগে, চোখের কোণে মধুর সেই হাসি, প্রাচীন প্রেম আবার বুকে জাগে, আজও তোমায় তেমনি ভালোবাসি !

না না , দেখে বয়স লাগেনা খুব, খ্যাতির সাগরে ভাসছো তুমি প্রিয়া, আমিতো দিয়েছি ভাবনায় এক ডুব, তোমার বুকেই আজও আমার হিয়া!

তোমার আমার গল্প আজও মেঘে, তোমার সুরে আজও নাচে মন, তোমার জন্যে রাতও কাটাই জেগে তোমার আমার স্বপ্ন চিরন্তন !!

আগুন, মিত্রা আর আমি - ৪

ভেজা ভেজা দিন, বর্ষার ঋণ আঁধারে হলো বিলীন, তুমি পাশে পাশে, এক একটি শ্বাসে, তুমি চিরদিন, অন্তহীন !

অঝোর বর্ষায়, সময় বয়ে যায়, নিস্তব্ধ নিরালায়, এলিয়ে তোমার কোলে, ঠোঁটেরই ছোবলে, দুর্বল আবেগ ধারায় !

তুমি আমি সাথে সাথে সাগর সৈকতে, নীল খামেদের ভেলায় ; নিশ্চুপে নীরবে, দুজনার অনুভবে, সোনালী সে সন্ধ্যেবেলায় !

জোছনায় মাখামাখি, ঘুমহীন দুটি আঁখি, ঢেউয়ে ঢেউয়ে মিশে যায় অজানায়, শুধু তো আমি নয়, সে রাতে তোমায়, ছুটি পাওয়া মেঘেরাও ছুঁতে চায় !

কিছু পথহারা পাখি, করে মিছে ডাকাডাকি, চুপি চুপি রাতও মিছে ডাকে ; শুয়েছিলে নিশ্চুপে , ভালোবাসা ভরা বুকে, শুধু ভোর হয়েছিলো কোন ফাঁকে !!

আগুন, মিত্রা আর আমি - ৫

মাথাতে চাদর মোড়া, হাতে পেন এক জোড়া, কাঁধেতে ঝোলানো ছিলো ব্যাগ, সব কিছু ভুলে গিয়ে, তোমার স্বপ্ন নিয়ে, হলো মোর কৈশোর ত্যাগ !

কৈশোর শেষ হলো, যৌবন এসে গেলো, সবুজ সে কলেজের মাঠেতে, স্তব্ধতা কথা বলে, সময় এগিয়ে চলে, শ্রান্ত সে ঝিলটির ঘাটেতে !

কানে নিয়ে হেডফোন, দেয়া নেয়া হতো মন, দুপুর গড়িয়ে যেতো সন্ধ্যায়, ভাবিনি তো কোনদিন, চলে যাবে একদিন, বুকখানি ভেঙে যাবে কান্নায় !

সোনালী সে চুল গুলো উড়ত যে এলোমেলো, ছুঁয়ে যেতো ঠোঁটেরই কোণেতে, ভাসা ভাসা চোখ গুলো, উড়াতো প্রেমের ধুলো, হারাতাম প্রেমে ভরা মনেতে !

যাই হতো মনে মনে, বুঝতে তা প্রতি ক্ষণে, ভালোবেসে টেনে নিতে বুকেতে, থাকতে আমার পাশে, এক একটি নিঃশ্বাসে, জীবনের সব কটি দুখেতে !

কেটে যায় বসন্ত, তুমি আমি অনন্ত, নীল খুঁজি আকাশের সীমানায়, হটাত তাকিয়ে দেখি, দাঁড়িয়ে আছি একি, পাহাড়ের শেষ কিনারায় !

ভালোবাসা গেলো ছুটে, বাস্তব নিলো লুটে, মনে মনে গড়া সংসার, দূরে চলে গেলে তুমি, চারিদিকে মরুভূমি, এক ঝড়ে ছিঁড়ে গেলো তার !!

আগুন, মিত্রা আর আমি - ৬

তোমার জীবন থেকে বহু স্মৃতি সাথে রেখে এসেছি যে চলে বহু দূর, চাইনি তো চলে যেতে, চেয়েছি তোমায় পেতে, তবুও তো কেটেছিলো সুর !

এসেছি অনেক দূরে, হারানো দিনের সুরে, ফিরবেনা দিন তো যে আর, নিজেকেই দিয়ে ফাঁকি, যত দিন আছে বাকি, জুড়বেনা আর তো সে তার !

চোখ ভরে আসে জল, তবু আমি অবিচল, হারাবার নেই কিছু আর, স্মৃতিগুলো চোখে ধরে, মনকে শক্ত করে, করছি সাগর পারাবার !

তোমায় দিয়েছি কথা, সয়ে নেবো সব ব্যথা, তুমি বিনা কাটবো যে রাত ; তোমার হাসি ভুলে, ভালোবাসা বুকে তুলে, ছেড়ে দেবো দুনিয়ার সাথ !

তোমারও জীবনখানি, হৃদয়ে ইতি টানি, ভেসেছে যে নদী মোহনায়, তুমি শুধু থাকো সুখে, জীবনের সুখে দুখে, হোক না আঁধার জোছনায় !

আগুন, মিত্রা আর আমি - ৭

দেখা হয় আজও ; যখন দেখা হয়, একই কথাই বলো ! ভালো আছো ? মনে পরে আমাকে ? আবার কবে দেখা হবে ? আমায় নিয়ে কবিতা লেখো ? গান গাও আজও ?

ভালো নেই আমি .....

শরীর উপরওয়ালার ঋণ,

আর মনটা তো ছায়ার মতো

তোমার সাথেই ঘোরে ফেরে,

নেশা করে প্রতিদিন !

হ্যাঁ তোমায় মনে পড়ে....

তাতে কি এসে যায় আজ ?

স্মৃতি গুলো আছে আমার বুকে;

কিন্তু অনেক আঁচড় নিয়ে

কফিনেতে বন্দী হয়ে,

মৃত দেহের সাজ !

রোজই তো দেখা হয়....

জেগে দেখি, স্বপ্নে দেখি রোজ !

চোখে পাতায় থাকো তুমি,

মনে তোমার চারণভূমি,

দিন-রাতেতে কেবল তোমার খোঁজ !

তোমায় নিয়েই তো লিখি....

কাগজ, কলম আমার হাতে,

থমকে আছি তোমার সাথে,

সবাই আজ আমায় বলে

হতাশ প্রেমের কবি ;

শেষের বেলায়, চোখের পাতায়,

আঁকছি বসে অবহেলায়,

তোমার-আমার দুই জীবনের ছবি !

মনে মনেই গাই যে আজ ....

গলার সুর আজ অনেক দূর,

মনের সুরে মেঘে ঘুরে,

পাখির সাথে গাই !

রয়েছো তো আমার বুকে,

সুখে না হয় নাইবা পেলাম,

দুঃখটাতো কেবল আমার,

তাতেই যেন পাই !

আগুন, মিত্রা আর আমি - ৮

বহুদিন পরে পেলাম এই খাতাটা ;

যে খাতায় তুমি আছো

পাতায় পাতায়,

নিজের রঙে, নিজের ঢঙে !

কোথাও বুকের পাঁজর ছিঁড়ে,

কোথাও আলিঙ্গনে !

কোথাও বা ঠোঁটের কোণে

কামড় দিয়ে রক্ত চেখে ;

খাতার পাতায় লাজুক চোখে

আমায় দেখে !

বইছে বাতাস পাতায় পাতায়,

শিউলি ফুলের গন্ধ আছে

এই খাতাটায় !

দু একটা রাত্রি আছে,

শিকল ছেঁড়া সন্ধ্যা আছে,

তোমার বুকের স্পর্শ নেয়ার

স্পর্ধা আছে,

এই খাতাটায় !

ঘামে ভেজা দুপুর আছে,

চোখ ভেজা বিকেল আছে,

কাক ভেজা বর্ষা আছে,

এই খাতাটায় !

অনুভূতির শীতল বাতাস

বয়ে গেলো শিরদাঁড়ায়,

একটা বড় শপথ আছে

শেষ পাতাটায় ... !

থাকনা সেটা আমার কাছে....

থাকনা সেটা বন্দী হয়ে

এই খাতাটায়......!!

আগুন, মিত্রা আর আমি - ৯

ফেলে আসা দিন গুলো

উড়িয়ে প্রেমের ধুলো ,

বার বার ফিরে আসে,

ঘুম ভেঙে দেখি,

তুমি নেই একি,

স্মৃতি গুলো শুধু পাশে !

ভোর কেটে যায়,

চেয়ে দেখি হায়,

শিশিরের কণা ঘাসে,

সকাল গড়িয়ে যায়,

দুপুরের আঙ্গিনায়,

তুমি নেই বিশ্বাসে !

দুপুর মনে মনে,

তোমারই স্মৃতি বোনে,

গন্ধ তোমার বাতাসে,

বিকেল গোধূলি চেরা,

পাখিদের ঘরে ফেরা,

তুমি নেই আশেপাশে !

সন্ধ্যের অন্ধকারে,

নদীর নিঝুম পাড়ে,

তোমার স্মৃতি ওই আকাশে,

আঁধার চাদর মোড়া,

বহু 'ক্ষণ' মন জোড়া,

ঘুম ভাঙে তোমার নিঃশ্বাসে !

আগুন, মিত্রা আর আমি - ১০

ক্ষমা কোরো মিত্রা ;

চাঁদ ভাঙ্গা পূর্ণিমায় অসংখ্য স্পর্শ

সাথে নিয়ে এসেছিলাম,

ফেরত দেয়া হয়নি !

তোমার চলে যাওয়ার পথের

কিছু দুমড়ানো ঘাস আজও আছে,

আছে তোমার চঞ্চল হাসি ;

তোমার ওড়নাটা চোখের ওপর

ফেলে, সেই খোলা আকাশটাও

আজ আমার কাছে ...

ক্ষমা কোরো মিত্রা,

ফেরত দেয়া হয়নি !

চিলেকোঠার নির্জনতায় মাখা

এক কৌটো দুপুর,

করমচায় ঠোঁট ছুঁইয়ে প্রথম

যৌবন দর্শন,

সারাদিন চোখে তোমায় মেখে

একঝাঁক ইচ্ছে পালন ...

কোনটাই ফেরত দেয়া হয়নি !!

থাক না মিত্রা এসব আমার কাছে;

পরজন্মে না হয় সুদে-আসলে

ফেরত দেবো .....

রূপম ....

নীড়বাসনা আষাঢ় ১৪২৮