• বর্ণালী মুখোপাধ্যায়

অণু-গল্প - নির্ভয়া

ফিরিয়া আসিলাম। পরিত্রাণ নাই যেহেতু । অনলস সে জ্বালা ক্লিন্ন স্বেদ গন্ধে আমাকে লইয়া আসে। নিরেট গৃহকোণ । লালা-সিক্ত উপাধান। নারীটি স্বৈরিণী বুঝা যায় তাহার অভিজ্ঞ মুখাবয়বে। তবু এ ক্ষণে সে ছলনা ভুলিল। চক্ষুময় কাতর আর্তনাদ - ছাড়িয়া দাও।

এ গরলে দহন আমার ও। লিবিডো জাগ্রত কামুকের হস্তে নির্মম ধাতব দণ্ড। শিকারকে দৃঢ় বাঁধিয়াছে শয্যাপৃষ্ঠে। নগ্ন শরীরটি অবলেহন করিতেছিল তাহার মৃত চক্ষুদ্বয় । সময় হইল। ত্বরা প্রবেশ করিলাম প্রমদার শরীরে। ত্রাস কাটিয়া নারী শক্তি জাগ্রত হইল--যেন প্রলয়োথ্থিত অম্বুধি । রজ্জুসমূহ খসিল! বন্যমার্জারী হেন রমণী ঝাঁপাইয়া পড়িল অবমানবটিতে। অতর্কিতে কাড়িয়া লইল দণ্ডটি। প্রবল প্রহারে চুরমার করিতে লাগিল পরুষ যাপন। সে ছটফটাইয়া- অ নক্কী ছেড়ে দে-ভুতে পেলো নাকি--বলিতে বলিতে নিস্তেজ হইল।

প্রমদাকে ছাড়িয়া অবশেষে ভাসিয়া চলিলাম অন্য প্রমদার কাছে। হে চন্দ্র শোভিত আকাশ । আমার মুক্তি নাই।


নীড়বাসনা আষাঢ় ১৪২৮