• দীপাঞ্জন মাইতি

অণুগল্প - বন সৃজন

সৃজনবাবুর দিনটা আজ ভীষণ ব‍্যাস্ত গেছে। বড় মাল্টিন‍্যশানাল কোম্পানির মাইনিং উইং এর এনভায়ার্নমেন্টাল অফিসার। সরকারের পরিবেশ রক্ষা সংক্রান্ত নিয়মকনুন মেনেই যাতে কোম্পানির সব কাজ করা যায় সে সব দেখাই সৃজনবাবুর মূল কাজ। তার সাথে পার্শ্ববর্তী অঞ্চলে পরিবেশ সংক্রান্ত বিভিন্ন সচেতনতামূলক উদ‍্যোগ নেওয়াটা সংস্থার 'কর্পোরেট সোশাল রেসপনসিবিলিটি' এর মধ‍্যে পড়ে; তার দায়িত্বও সৃজন বাবুর কাঁধে। আজ বিশ্ব পরিবেশ দিবসের উপলক্ষ‍্যে আজ বৃক্ষ রোপণ উৎসবের মূল দায়িত্ব তাঁর কাঁধেই ছিল। আশপাশের আদিবাসী গ্রামগুলো থেকে বাচ্চাদের নিয়ে আসা হয়েছিল, মাইনিং প্রজেক্টে কাজ করে তাদের বাবা - মা - দাদারা। প্রজেক্ট ডিরেক্টর গোয়েল সাহেব চারাগাছ তুলে দিয়েছেন বাচ্চাদের হাতে; সব বাহারি গাছের চারা জোগাড় করার দায়িত্ব ছিল সৃজনবাবুর ওপরই। সব ভালোই ভালোই মিটেছে, গোয়েল সাহেব খুব খুশি - গত বছর আটকে যাওয়া পদোন্নতিটা এবার হয়ে যাওয়া উচিত..

'সাকশেসফুল প্রোগ্রাম' সেরে ফেরার পথে সৃজনবাবু খুশি মনে বাড়তি তিনটে চারাগাছ কমপ্লেক্সের দারোয়ান বাবুজানকে দিতে গেলেন.. বাবুজান নিলো না - বলল "বাবু আপনারা যেখানে বনসৃজনের চারা পুঁতলেন ওখানে আগে ঘন বন ছিল। এই তিনটে গাছ কম বেশীতে আর কি যায় আসবে বলুন! ঐ তিনটে গাছ লাগানোর পূণ‍্যটুকু বরং আপনারই থাক; কাজে লাগবে।"

নীড়বাসনা আষাঢ় ১৪২৮