• অভিষেক চৌধুরী

কবিতা - বিশ্বদ্রোহী

“The mind is its own place, and in itself

Can make a Heaven of Hell, a Hell of Heaven.” – Paradise Lost

আমাকে চেনে সবাই, আমার বিভূতি সর্ব-প্রসারিত-

আমায় বিনষ্ট করা কারোরই অতিশয় সাধ্যাতীত।

আমি বেয়াদব, আমি শয়তান!

আমি Doomsday’র ভোরে কালি মেখে করি সুরাপান;

আমি কৃষকের খুন ললাটে মেখে

ঘুষ নিয়ে ফিরি, নেতাদের করি জয়গান!

আমি বিশ্বদ্রোহী

তমোগুণাবিষ্ট নরক-কীট-সমান!

আমি নরকঙ্কাল খুলির দুখানি কালো কোটরের ভয়:-

হাড় হিম করা পিয়াসা খলতা যেখানেতে জমা হয়!

আমি ideology গুবলেট করা সামাজিক অবক্ষয়।

আমি নির্যাতনের কলঙ্ক-মাখা ছেঁড়া চুল,

আমি উন্নয়নের আগুনে পোড়ানো পেষা ফুল।

আমি পরাধীনতার অভিশাপ, plagiarism আমার পেশা!

আমি উচ্ছৃঙ্খল তরুণ-জীবনে লালসা-জাগানো নেশা।

আমি অপ্রতিরোধ্য দুর্নীতি, আমি চাতুরীপ্রবল প্রতারক!

আমি প্রমত্ত কচি-মাথা গ্রাস করা blue whale game-এর ধারক।

আমি কোটিপতিদের কৃপণতা-ভরা ক্ষোভ;

আমি stock market-এ মহামূর্খের লগ্নী-পিপাসু লোভ।

আমি অঙ্গ-পাচারে নিদারুণ পটু, নারীদেহ করি সেবন!

আমি পাখী-নিহন্তা cell tower-এর অবিরাম বিষ-বিকিরণ।

আমি মৃত্যুদূত Mengele-এর কালকুঠুরির বীভৎস বর্বরতা!

আমি Vesuvius-Merapi’র বেশ ধরে বিলুপ্ত করি সভ্যতা।

আমি অমানবিক দুরাচারী:-

আমি Pedophilia পকেটে পুরে শিশুজীবনে ত্রাস সঞ্চারী!

আমি সীমা-ভেদ করা অনুপ্রবেশকারী,

আমি ভাগাড়ের রোলে লুকিয়ে থাকা মহামারী!

আমি বিশ্বদ্রোহী

বিশৃঙ্খলা-সৃষ্টিতে আমার নেই কোনো জুড়ি!

আমি শিরায় শিরায় heroin meth সঞ্চার হওয়া খুন!

আমি রাতের আড়ালে dustbin-এ ফেলি ত্যাজ্য রক্তাক্ত ভ্রূণ।

আমি সন্ত্রাস, আমি জিহাদী!

জান্নাৎ-হূরের প্রগাঢ় লোভে বোমা-বন্দুকে কানামাছি খেলি,

রক্তবন্যায় করি মাতামাতি।

আমি উচ্চপদস্থ অভিমানি বর,

পণ না-পাওয়ায় বউ কে নিক্ষেপ করি আগুনে!

আমি patriarchy’র অনুচর,

শিশুকন্যার গলায় ঢালি কাচ-গুড়ো সন্তর্পণে।

আমি নৃশংস মহাপিচাশ!

আমি হেসে মরি দেখে ক্রন্দনরত অবলা নারীর হা-হুতাশ।

আমি প্রজ্জ্বলিত হিংসা, আমি দুষ্কর্মের নব-অভ্যুদয়,

আমি অন্যায়ের চিরন্তন আত্মপ্রত্যয়।

আমি শহীদের কফিনের পাশে নেতাদের ভুয়ো প্রতিশ্রুতি;

আমি অপরিকল্পিত নগরায়ণে সারি সারি গাছের আহুতি।

আমি social media’র বীর সন্তান, ট্রোল করি সৎ যুক্তি:-

গোপনে বিবাদ ছড়িয়ে দাঙ্গা করানোয় আমার প্রবল স্ফূর্তি!

আমি বিশ্বদ্রোহী

আমার কবলে পড়লে কারোরই নেই কোনোদিন মুক্তি!

আমি শাণিত লোহাকে তিলে তিলে খাওয়া জং;

আমি খুচিয়ে তুলি ক্যানভাসে ছড়ানো রঙ।

আমি অক্ষয় ইঁদুরবাহিনী!

আমি কুচি কুচি করে সাফ করি সব জ্ঞান-ভাণ্ডার-কাহিনী।

আমি genocide-এর হাহাকারে প্রচ্ছন্ন মহাভয়!

আমি খনিজ-ইন্ধনের অপব্যয়, আমি বিদ্যুৎ ও জলের নিরন্তর অপচয়।

আমি casino টেবিলে ঘূর্ণায়মান চক্র!

আমি ১৩ই শুক্রবারে ভাঙা আয়নার টুকরো।

আমি অরাজকতার দালাল!

আমি অপরিশোধ্য ঋণের বোঝায় দুর্ভাগাকে করি কাঙাল;

আমি ব্রহ্মচেতনা ছারখার করা ষড়রিপুর মায়াজাল।

আমি মূলাধার থেকে সহস্রারের পথ কলুষিত করি ছলে,

আমি যোগ্য দক্ষ প্রতিভাশালীকে বঞ্চিত করি কৌশলে।

আমি বর্ণময় supernova

তারকার অপমৃত্যু ঘটিয়ে মহাশূন্যে বাড়াই শোভা!

আমি black hole-এর ন্যায় টেনে ছিঁড়ে ফেলি অস্তিত্বের আভা।

আমি শনি-মঙ্গল-রাহুর সম্মিলিত বক্র দৃষ্টি!

আমি বিশ্বদ্রোহী

আমি মহাকাশব্যাপী দানবিক অনাসৃষ্টি!

আমি চম্পাওয়াতের বাঘিনীর নরক্ষুধা!

আমি manchineel-এর সবুজ আপেলের নিঠুর বিহ্বলতা।

আমি এক নিমেষে স্নায়ুতন্ত্রকে অসাড় করা Botox কণা!

আমি BDSM-এ তোলপাড় করি প্রাণহীন শয্যাললনা!

আমি মানুষে-পশুতে প্রধান বিভেদ:- প্রবৃত্তিহীন ছলনা।

আমি poacher-এর অলঙ্ঘ্য বন-নির্যাতন!

আমার আতঙ্কে হাতিদের ivory-হীন নব-বিবর্তন।

আমি বিকৃত বিজ্ঞানীর গবেষণাগারের দৈত্যরূপী সঙ্কর;

আমি জাতিবর্ণের ভেদাভেদ, আমায় মেটানো বড়ই দুষ্কর।

আমি মানবাধিকারের উল্লঙ্ঘন!

আমি বংশানুক্রম পঙ্গু-করা তেজষ্ক্রিয় দূষণ।

আমি কুটিলের কুমন্ত্রণা, আমি ন্যায্যতার অপমান!

আমি ঘুষ-খাওয়া interview panel-এ মেধাবী ছাত্রকে করা অবান্তর প্রশ্নবাণ।

আমি সর্বাধিক মানব-সংহরণ-ব্রতী পচা জলে ভাসা larva!

আমি Zombie’র মুখে Glasgow হাসি, Vampire-এর দাঁতে রক্তের শোভা।

আমি mob-lynch এর শিকারী!

জনে জনে বিলি করি propaganda, সত্যেরে বানাই মিথ্যাচারী।

আমি petroleum cartel:

টাকার পাহাড়ে চাবুক-হাতে বসে, বিশ্বজনে করি ভিখারী!

আমি dark web জুড়ে দাপিয়ে চালাই নিষিদ্ধ চোরাকারবারি।

আমি অন্ধকার gulag-এর দেওয়ালে রক্ত জমাট-বাঁধা;

আমি serial killer-এর অভাবনীয় বুদ্ধির অমীমাংসিত ধাঁধা;

আমি কলিযুগব্যাপী অশিক্ষার ধুলো, কুশিক্ষার কাদা!

আমি বিশ্বদ্রোহী

আমার আমৃত্যু সঙ্কল্প: ইতিবাচকের পথের বাধা!

আমি নির্জন দ্বীপে নরখাদকের প্রেয়সী;

আমি মানব-বোমার ঠোঁটে লেগে থাকা উদ্ধত অমলিন হাসি।

আমি psychopath-র তক্‌মা পাওয়া cold blooded ঘাতক,

প্রতিপত্তির জোর খাটিয়ে প্রাণ-বাঁচিয়ে প্রতিবারই আমি পলাতক।

আমি ragging-এর বিভীষিকা, আমি bully’র অসংযত তিরস্কার!

আমি ধনী-দরিদ্রের মধ্যবর্তী অসাম্য-বৃদ্ধির হার।

আমি Conspiracy Theory সমৃদ্ধ রটনা:-

তুখোড় জটিল স্বজ্ঞা লাগিয়ে ভণ্ডুল করি প্রচলিত ধারণা;

আমি superpower-এর অন্তর্দ্বন্দ্বে দুর্বলের পীঠে পদচারণা।

আমি ধুরন্ধর whistleblower, আমি racism-এর অমোঘ মন্ত্র,

আমি পরশ্রীকাতর দুর্বৃত্তের নির্ভুল ষড়যন্ত্র!

আমি malware-রূপে গোপনীয়তা চুরমার করা অনৈতিক hacking-তন্ত্র!

আমি বিশ্বদ্রোহী

আমার দখলে পাপ-পুণ্যের হিসাবযন্ত্র!

আমি Great Pacific Garbage Patch-এর বিস্তীর্ণ জঞ্জাল:-

নিঃশব্দে গ্রাস করি সমগ্র Aquatic জীবজন্তু প্রবাল।

আমি পৃথিবীর বুকে এঁকে রেখে যাই চির-carbon footprint!

আমি Holocene Extinction:

প্রকৃতির সম্পদ সামগ্রী বিলুপ্ত করাই আমার অভিযান!

আমার কবলে আবহমণ্ডল বিষাক্ত করার blueprint!

আমি ততদিন থাকবো বহাল

যতদিন সুবিচার শুচি শুদ্ধচিন্তা মৌলিকতার আদর্শ,

প্রতি স্তরে স্তরে জাগাবেনা সত্যের আলোড়ন, সুন্দরের উৎকর্ষ!

আমি সেই দিন হব অন্তর্হিত,

যেদিন তমসার আঁধার চিরতরে হবে জ্ঞানদীপালোকে আলোকিত!!

(কবি নজরুলের চরণে নিবেদিত)

নীড়বাসনা আষাঢ় ১৪২৮