• গোপা ভট্টাচার্য্য

কবিতা - শুধু তোমায় খুঁজি

গ্রীষ্মের প্রখর রোদে, জ্বলন্ত এক দুপুরে, উল্কা বিচ্ছুরিত বাতাসের নির্মম রুদ্র তায় আকণ্ঠ তেষ্টায় তৃষ্ণার্ত আমি, কাতরে তোমার চোখে চোখ রেখেছি, আপ্রাণ অনুসন্ধানে জীবন দিয়েছিলে আমায়। তুমি আমার তেষ্টা মিটিয়েছিলে মনের ও। দেখেছিলাম ওই দু চোখে ভালোবাসা। সিক্ত অধরে দুজনার তেষ্টা মিটেছিল সেদিন প্রণয় অম্বরে। কত গ্রীষ্ম এসে যায় আদ্রতাও মিলিয়ে যায় অপার দিগন্তে। তোমার উষ্ণতা খুঁজি আজও অহরহ , অধীরতায়। জানা নেই আমার, কোথায় তুমি হারিয়ে গেছো, বা হয়ত আছো কোথাও অজ্ঞাতবাসে!!! বিরহ প্রেমের হতাসিত মন, খুঁজে বেড়ায় সারাক্ষণ, শুধু তোমায় ।

বর্ষার অবিরত বারিধারা অঝোরে ঝরে অশ্রু-রূপে আঁখি তটে, হৃদয় বিদীর্ণ হাহাকারে। সেদিন ও যেমন ঝরেছিল শ্রাবণ ধারা, না থামার অঙ্গীকারে। ঘন কালো আকাশে বিজুলির হুংকারে ত্রস্ত হৃদয়ে আঁতকে উঠেছিলাম আমি, সোহাগে আবেগে টেনে নিয়েছিলে বুকে। আত্মসমর্পণে আরো দৃঢ় হয়েছিল তখন সম্পর্কের বন্ধন। হায় অদৃষ্ট!! কোন নির্দয়তার ছিন্ন আজ হৃদয় প্রেমের প্রণয় বন্ধন। এখনও যে এ হৃদয় খুঁজে বেড়ায় সারাক্ষণ, শুধু তোমায়।

দিনের পর দিন গত হয় হতাশায় , মাসের পর মাস মনে হাহুতাশ। আবর্তিত হয় ষড়ঋতু, অপেক্ষার আশায় রত শুধু হতাশার কালোছায়া। আহত মনপাখি, এখনও খুঁজে বেড়ায় সারাক্ষণ, শুধু তোমায় ।

নীড়বাসনা আষাঢ় ১৪২৮