• কৌশিক মন্ডল

কবিতা - অরণ্যে রোদন

আমি আদিম আমি বন্য আমি গহন আমি অরন্য যখন তোমার হয়নি মুখে ভাত ওঠেনি তোমার সভ্যতার হাত যখন লোহা পিটিয়ে হয়নি হাতিয়ার যখন পৃথিবীময় আমার এক্তিয়ার যখন গাছের আপেল বনের শূয়ার খাবার জোগায় তোমার আমার যখন বইত নদী আপন চালে বাঁধ ছিল না সেই হিল্লোলে যখন আলোর প্রবেশ নিষেধ ছিল এত ঘন সবুজ ছিল কোথায় গেল? কোথায় গেল আমার প্রিয় অন্ধকার চোখ ধাঁধাঁনো আলো তোমার সভ্যতার তিলে তিলে আমার সৃষ্টি ছিনিয়ে নিলে হিংস্র আমি নতজানু তোমার পদতলে প্রতিহিংসার আগুন জ্বলে আমার গহ্বরে শহর নগর জ্বালিয়ে দেব শিক্ষা দেব তোরে বন্যা দেব, ক্ষরা দেব, দেব ঘাতক মহামারি দেখি তোর শক্তি কত, সাহস কত, কত জারিজুরি

আগুন ঠাণ্ডা হলে ভাবি হায় রে দুর্ভাগা কবি এ কোন বিনাশের ছবি? তুইও যে আমারই দান কেমন করে নিই তোর প্রাণ?

কবি পরিচিতি -

শেকড় ছিঁড়ে গৃহের থেকে দূরে

খুঁজি পরিচয় অধুনা কোন শহরে

মনের ভেতর কষ্ট ওঠে ছটফটিয়ে

তাদের লিখে লাঘব করি ছন্দ দিয়ে

ফেলে আসা স্বপ্ন যখন যায় হারিয়ে

দু-এক কথায় মুক্ত করে দিই ছড়িয়ে

- কৌশিক মন্ডল

নীড়বাসনা আষাঢ় ১৪২৮