• অরুণাভ দত্ত

কবিতা গুচ্ছ - শেষ দিন এবং শেষ বিদায়ের পর


শেষ দিন



ক্রমাগত মৃত্যু চিন্তা আসে ,

মানুষ হোক বা ইঁদুর -

মৃতদেহ মূলত শান্ত সমাহিতই লাগে।

কেমন হবে শেষের দিনটি শুরু?

সকালের আলো ফুটবে কি অমোঘের একটু দেরিতে?

নাকি তার তাড়া আছে খুব!

মরণাপন্ন রোগীর আত্মীয়ের মতো ঘোলাটে রোদ্দুর,

অনেক চৌকাঠ ঘুরে,হয়তো ছুঁয়ে যাবে রোগগ্রস্ত বিছানা -বিফল মনোরথে !

প্রিয় জন ব্যস্ত দূর দেশে, দুর্দান্ত জরুরী কোন কাজ !

কেউ কি থাকবে পাশে , অশ্রুসজল?

হাঁফ ছাড়া ,বিরক্ত কাঁটা গাছ যত ..

অস্পষ্ট ফিসফাস, ক্রন্দনধ্বনি,

যন্ত্রণা‌ না ঘুম - আগেই যাবে কি জানা শেষ পরিণতি ?

কোন অংশ জবাব দেবে সবার প্রথম-

সারা জীবন জ্বালিয়েছে যে, নাকি তার নতুন দোসর?

সপ্রতিভ থাকা‌র চেষ্টা ব্যথা আর করুণা র মাঝে,

মলমূত্র উলঙ্গ জীবন !

বরং ভাসিয়ে দিক হিমবাহ,অতিপ্রাকৃত দাবানল কোনো, মারণ ভাইরাস,

পড়ে থাক্ হাতে লেখা পুরনো ডায়েরি,

অর্থহীন পরিকল্পনা যত,হিসেব নিকেশ-

পাসওয়ার্ড আর মুঠো-কবিতার রেশ,

হেমন্তের কিছু প্রশ্রয়, স্নেহের শিশির,

তারপর মৃত পায়রার মতো শুয়ে থাকা, এক চিলতে সবুজ মাঠে,

অথবা লৌহ শলাকায় বেঁধা বিদ্যুৎপৃষ্ট পরিযায়ী পাখি....

নিরন্তর পৃথিবী আবার, আরো কত ক্ষতচিহ্ন বাকি ।।





কবিকন্ঠে কবিতার আবৃত্তি শুনুন




শেষ বিদায়ের পর


চাবুক দিয়ে মেরেছি তাদের ক্রমাগত ,অহর্নিশ,

কালশিটে দাগ আমার

বাকি জীবন জুড়ে তাই ।

আড়াই যুগের ভালোবাসা ,দেড় যুগ অবহেলা ,

ঘৃণা যত ক্ষমাহীন ভুলের।।

উলট পুরাণ বাস্তব বোধ ,শরশয্যায় পর্নোগ্রাফি,

আসল আমার আপন ছেড়ে ধুলোর খেলা খেলি,

মূর্খ তমের আয়না পারদ,

পৃথিবী-আঘাত প্রতিফলিত হয় নির্লজ্জ নির্বোধ অভিমানী ইতিহাসের ভিড়ে,

এরপর চুল্লীর গনগনে আঁচ,উড়ে যায় পোড়া অস্থি র ধোঁয়া,

কেউ তো খুঁজবে না আর কোনদিন -

মধ্যরাতের বিশল্যকরণী ডায়েরি ,ঘুম চোখে আশ্চর্য মমতায় -

পায়রার বুকের ওম,

নিষ্ফল ভরসার কথা, নিরন্তর উৎসাহে,

পূর্বজদের স্নেহের দেয়াল, বাস্তু ভিটের ধ্বংসাবশেষ,

ফোকলা হাসি, পুকুর বাগান - হারিয়ে গেছে, হারিয়ে গেছে!

পরম বন্ধু শেষ বিদায়ের পর,

ঝমঝম ঝমঝম বৃষ্টি,

নিস্তব্ধতা !

দূর বহু দূর নক্ষত্রের আলো -

সে যে বড় আপন ছিল হায়।।



কবি পরিচিতি - অরুনাভ দত্ত তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থায় কর্মরত - বাংলা সাহিত্যের প্রতি ভালোবাসা থেকেই কিছু শখের লেখালেখি করেন। মূলত পুনা নিবাসী হলেও বর্তমানে কর্মসূত্রে ইউরোপে রয়েছেন। প্রিয় কবি জীবনানন্দ এবং পূর্ণেন্দু পত্রী। গদ্যের মধ্যে ডিটেকটিভ সাহিত্য বিশেষ প্রিয়।


নীড়বাসনা আষাঢ় ১৪২৮